20 Nov 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

পাতাঃ মফস্বল সংবাদ

লক্ষাধিক লোকের কর্মসংস্থান ছাতক শুল্ক স্টেশনে দু’বছর পর বোল্ডার-চুনাপাথর আমদানি শুরু

পাথরনাজমুল ইসলাম, ছাতক সংবাদদাতাঃ দীর্ঘ দু’বছর বন্ধ থাকার পর বহুল প্রতীক্ষিত বোল্ডার ও চুনাপাথর ভারত থেকে আমদানী শুরু হয়েছে। ফলে ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ভারত ও বাংলাদেশের পাথর আমদানি-রপ্তানীর বানিজ্যিক সম্পর্ক পুনরায় শুরু হলো। এক্ষেত্রে দু’দেশের ব্যবসায়িদের গুরুত্বপূর্ণ অবদানে দীর্ঘদিনের এ জটিলতার অবসান ঘটেছে বলে জানা গেছে। জানা যায়, ভোলাগঞ্জ, চেলা ও ইছামতি সীমান্তে পাথর ও চুনাপাথর আমদানি দু’বছর থেকে বন্ধ থাকায় এপেশায় নিয়োজিত ব্যবসায়ি-শ্রমিকসহ লক্ষাধিক লোক বেকার হয়ে পড়েন। বিস্তারিত… (186 বার পড়া হয়েছে)

ছাতকে ভীমরুলের কামড়ে ৩ জন নিহত, আহত ৩

vimrulছাতক সংবাদদাতাঃ ছাতকে ভীমরুল পোকার আক্রমনে ৩জন নিহত ও আহত হয়েছেন আরো ৩জন। একসপ্তাহের মধ্যে এসব হতাহতের ঘটনায় জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। জানা যায়, বুধবার উপজেলার ছৈলা-আফজালাবাদ ইউপির কহল্লা গ্রামের আবুল কালামের পুত্র হাসান আহমদ (৮) লাকড়ি সংগ্রহের সময় ভীমরুল পোকার আক্রমনে গুরুতর আহত হয়। বিস্তারিত… (316 বার পড়া হয়েছে)

বাহুবলে গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে রহস্য রহিমার স্বজনেরা বলছেন পরিকল্পিত হত্যা

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার পার্শ্ববর্তী বাহুবল উপজেলার লাকড়িপাড়া গ্রামে স্বামীর বাড়িতে রহিমা আক্তার লাভলী (১৯) নামের গৃহবধুর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। রহিমার স্বজনেরা বলছেন শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। অপরদিকে তার স্বামীর বাড়ির লোকজনদের দাবি গৃহবধু লাভলী স্ট্রোক করে মারা গেছে। তিন দিন পর লাশ ময়না তদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে।সুত্রে প্রকাশ,বড়গাঁও গ্রামের আব্দুল হামিদ চৌধুরীর কন্যা মোছাঃ রহিমা আক্তার লাভলী চৌধুরীকে প্রায় আট মাস পুর্বে বিয়ে বিস্তারিত… (98 বার পড়া হয়েছে)

কুলাউড়ায় অভিযানে উন্মত্ত হাতি আটক

এম শাকিল রশীদ চৌধুরী, কুলাউড়া থেকে ঃ কুলাউড়া উপজেলার মেরীনা চা-বাগানের ৮নং সেকশনে অবস্থান নেয়া এক উন্মত্ত হাতিকে বৃহস্পতিবার ঢাকার চিড়িয়াখানা ও কক্সবাজার ডুলহাজরা সাফারী পার্কের দু’টিমের অভিযানে হাতিকে নিস্তেজ করে আটক করা সম্ভব হয়েছে।
বন বিভাগসুত্রে জানা যায় জুরী উপজেলার মামুনুর রশীদের নিয়ন্ত্রনহীন উম্মত্ত একটি হাতির আক্রমনে গত ২৩ সেপ্টেম্বর মেরিনা চা-বাগানের ৮নং সেকশনে কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের মনছড়া নিবাসী গনি মিয়া (৪৫) নামে এক মাহুত মারা যাওয়ার পর সোমবার ঢাকা থেকে ওয়াইল্ড লাইফ ক্রাইম কন্ট্রোল ইউনিটের পরিদর্শক আব্দুল¬াহ আল সাদিক এবং বিস্তারিত… (100 বার পড়া হয়েছে)

সুনামগঞ্জে ফসলহানী, ৭ ঠিকাদারের ২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা বাজেয়াপ্ত

tahirpur-sunamgonj sharok dube gece-19.08.15

তাহিরপুর সংবাদদাতাঃ সুনামগঞ্জের ১১টি উপজেলার ৩৬টি হাওরের ১৬০টি প্যাকেজে ৪৭টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বোরো ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মানের কথা ছিল। কিন্তু চরম অনিয়ম, দুর্নীতি ও গাফিলতির জন্য অকাল বন্যায় এক ফসলী বোরো ধান উৎপাদনে সমৃদ্ধ জেলার ৯০ভাগ বোরো ধান পানিতে তলিয়ে যায়। যাদের বাঁধ নির্মানের কাজ ৩০শতাংশের নিচে দেখানো বিস্তারিত… (43 বার পড়া হয়েছে)

ছাতকে মিনিবাস পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১০

Durgotonaছাতক প্রতিনিধিঃ ছাতকে মিনিবাস ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে দু’নির্মাণ শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় মহিলাসহ ১০জন শ্রমিক আহত হয়। বুধবার রাত ৯টায় সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের জাতুয়াবাজার এলাকায় এঘটনা ঘটে। বিস্তারিত… (128 বার পড়া হয়েছে)

সিলেটে ভৌতিক বিলে বিক্ষুদ্ধ গ্রাহকদের বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও

biddutমো. শাফী চৌধুরী
সিলেট জুড়ে প্রদান করা হচ্ছে ভৌতিক বিদ্যুৎ বিল। এ নিয়ে বিদ্যুৎ অফিসে গ্রাহকরা বার বার অভিযোগ করেও পাচ্ছেন না সমাধান। সর্বশেষ কোন সমাধান না পেয়ে ভৌতিক বিদ্যুৎ বিল প্রদানের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ-২ এর মিরাবাজার অফিস ঘেরাও করেছে গ্রাহকরা। এ সময় অফিসের কর্মকর্তাদের সাথে গ্রাহকদের বাকবিতন্ডা করতে দেখা যায়। পরবর্তীতে নির্বাহী প্রকৌশলীর আশ্বাসে তারা ঘেরাও তুলে নেন।
জানা যায়, বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ সিলেটের এর আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় গত কয়েক মাস যাবত ভৌতিক বিদ্যুৎ বিল প্রদান করে আসছেন কর্তৃপক্ষ। অনেকের বিদ্যুৎ বিলে একমাসের ব্যবধানে কয়েক হাজার টাকা বিল প্রদানেরও অভিযোগ পাওয়া গেছে। মৌখিক ভাবে গ্রাহকরা কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে অভিযোগ করে আসলেও তারা তাতে কোন কর্ণপাত করেন নি। অভিযোগ কারীদের সাথে আলাপ করে জানা যায়, বিগত কয়েক মাস থেকে মিটারের রিডিংয়ের সাথে কোন মিল না রেখে বিদ্যুৎ বিল প্রদান করে আসছে বিদ্যুৎ বিভাগ। তারা তার প্রতিবাদ করলে কর্তৃপক্ষ থেকে তাদেরকে এনালগ মিটার পরিবর্তন করে ডিজিটাল মিটার স্থাপনের পরামর্শ দেন। ডিজিটাল মিটার স্থাপন করলে মিটারের রিডিংয়ের সাথে বিলের মিল থাকবে বলে আশ্বস্ত করা হয় তাদের। কিন্তু ডিজিটাল মিটার স্থাপনের পরও সেই আগের মত ভৌতিক বিল প্রদান করা হচ্ছে। তাছাড়াও লাইনম্যান মিটার না দেখে বিদ্যুৎ বিল লিখে থাকেন বলে জানান অভিযোগকারীরা। যার ফলে মাসের পর মাস থেকে এ বাড়তি বিল প্রদান করতে হচ্ছে গ্রাহকদের।
রায়নগর এলাকার শাহজাহান আহমদ জুন মাসের তার বাসার একটি বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দেখিয়ে বলেন, জুন মাসে আমার বাসায় ১৭০ ইউনিট বিদ্যুতের বিল প্রদান করা হয়। কিন্তু জুলাই মাসে আমাকে ৯৮৭ ইউনিটের বিল প্রদান করা হয়েছে। এ বিষয়ে আমি কয়েকবার মৌখিক ভাবে বিদ্যুৎ অফিসে অভিযোগ করে আসছি। গত আগস্ট মাসে জুলাইয়ে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে অভিযোগ করেছিলাম তখন তারা আশ্বস্ত করেছিলেন আগস্ট মাসে বিলে তা ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু এ মাসেও ঠিক হয়নি।
ভৌতিক বিদ্যুত বিলের প্রসঙ্গে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিউবো-২ এর শহরতলীর মুরাদপুর বাইপাস এলাকার গিয়াস উদ্দিন নামে এক গ্রাহক জানান গত তিন মাস ধরে তার বাসায় হঠাৎ করে বড়ো অঙ্কের বিদ্যুত বিল আসা শুরু করে। অথচ তিনি মাত্র একটি ফ্যান আর দুটি লাইট ব্যবহার করেন। তিনি নিয়মিত প্রতি মাসে বিল পরিশোধ করে আসছেন তাই তার কোনো বকেয়াও নেই। তিনি আরো বলেন বিদ্যুত বিলের কাগজ যারা দিতে আসে তারা তাদের মিটারই দেখে না। মিটার না দেখেই অনুমানের উপর ভিত্তি করে তারা এই বিল দিয়ে যায়। তাদের বলেও কোনো লাভ হয়না, তারা বলে মিটার দেখা আছে। এতে করে তার মতো আরো অনেক গ্রাহককে বাড়তি বিলের কারণে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তিনি জানান, তিনমাস আগে হঠাৎ করে তার কাছে ২২ শত টাকার বিলের কাগজ ধরিয়ে দেয়া হয়। পরের মাসে আবার সাড়ে ৩ হাজার বিল আসবে বলে জানান বিলের কাগজ বিতরণকারী। বাড়তি বিল নিয়ে এসময় তিনি তার সাথে কথা বললে বিল বিতরণকারী জানান, তার পুরোনো বিল জমা রয়ে গেছে, তাই ওগুলো দেয়া হচ্ছে। গিয়াস উদ্দিন প্রশ্ন তোলেন প্রতি মাসে বিদ্যুত বিল বিতরণকারীদের বিতরণ করা কাগজ দেখে তিনি যেখানে নিয়মিত বিল পরিশোধ করে আসছেন সেখানে তার বকেয়া বিল কিভাবে থাকে। এটি সুস্পষ্ট প্রতারণা। তার মতো আশপাশের প্রায় সব গ্রাহকের এই একই অভিযোগ।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, বিদ্যুতের মিটারের ছবি তুলে বিদ্যুৎ বিল তৈরী করার জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয় প্রাইভেট কোম্পানী মুনসী ইঞ্জিনিয়ারিং এসোসিয়েশনকে। কিন্তু বিগত কয়েক মাস যাবত তারা বিদ্যুতের মিটারের সাথে কোন সামঞ্জস্য না রেখে বিদ্যুৎ বিল প্রদান করে আসছে। যার কারণে অনেকের মিটারে পূর্বের বিল জমা থেকে যায়। তিনি আরো জানান, অনেক গ্রাহক বিদ্যুৎ বিল কমিয়ে দেওয়ার জন্য লাইনম্যানকে অতিরিক্ত টাকা দিয়ে থাকেন। যার কারণে তারা রিডিং না দেখে লাইনম্যান কম ইউনিটের বিল তৈরী করে দেন গ্রাকদের। যার কারণে মিটারে বিল জমা হয়ে আছে অনেক গ্রাহকের।
এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী পারভেজ আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলেও তিনি জানান, মুনসী ইঞ্জিনিয়ারিং এসোসিয়েশনকে বিদ্যুতের ¯œ্যাপিং ও বিলিংয়ের কাজ দেওয়া হয়েছিলো। তারা ঠিক মত রিডিং দেখে বিল তৈরী না করার কারণে গ্রাহকদের মিটারে পূর্বের অনেক ইউনিট জমে আছে। যার কারণে এক সাথে সব বিল আসার কারণে গ্রাহকদের নিকট তা ভৈৗতিক বলে মনে হচ্ছে। তিনি আরো জানান, আমি এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে অবহিত করেছি। গস্খাহকরা বলছেন যেহেতু তাদের পক্ষে একসাথে এত টাকা পরিশোধ করা সম্ভব হবে না তাই তা আমরা কতৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে কিস্তিতে পরিশোধের ব্যবস্থা করেন দিবো। (1753 বার পড়া হয়েছে)

তাহিরপুরে মেয়ের আত্মহত্যা, বাবা ও সৎ মা গ্রেফতার

atttohottaতাহিরপুর সংবাদদাতাঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় কলেজ ছাত্রী সাউদি আক্তার সারমিন সুমির (২১) আত্মহত্যার ঘটনায় বাবা সুরুজ সর্দার ও সৎ মা ইয়াছমিন আক্তার কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বুধবার দুপুরে নিহত ছাত্রীর মামা আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে তাহিরপুর থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ করে মামলা দায়ের করে। মামলা নং-২০। মামলা দায়েরের পর রাতে নিহত কলেজ ছাত্রীর বাবা ও সৎ মাকে গ্রেফতার করার পর আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় সুনামগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরন করছে তাহিরপুর থানা পুলিশ। এলাকাবাসী ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়,গত মঙ্গলবার দুপুর ২টা ৩০মিনিটে বাড়ির লোকজন দুপুরের খাবার খাওয়ার সময় সুমি নিজ বাড়ির রান্না ঘরে উড়না পেছিয়ে আতœহত্যা করে। পরে ঝুলন্ত অবস্থায় পরিবারের লোকজন দেখতে পায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাতপাতালে প্রেরন করা হয়। স্থানীয় এলাকাবাসী আরো জানায়,পিতা সুরুজ মিয়া মদ খেলে প্রায়ই মেয়ে সুমিকে নানান কারনে মারধর করত ও সাথে সৎ মাও শারীরিক নির্যাতন করত। ঘটনার দিনও একেই পরিস্থিতির শিকার হয়ে সুমি আতœহত্যার পথ বেঁেচ নেয়। তাহিরপুর থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর বাবা ও সৎ মা আটকের এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। (93 বার পড়া হয়েছে)

সোনা হীরা খনিজ যুদ্ধের জাহাজ নয়, এখন জ্ঞান হচ্ছে সবচেয়ে বড় সম্পদ—ড. জাফর ইকবাল

02সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ড. মোহাম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, এক সময় বাংলাদেশে ইন্টারন্টে, গাড়ী ঘোড়া ছিল না। দেশ এখন উন্নত হয়েছে। দেশের জিডিপি এখন ১৬০০ ডলার। তার প্রধান কারণ হচ্ছে এদেশে ছেলেদের সাথে মেয়েরা সমান তালে পাল্লা দিয়ে পড়ালেখা করে। মেয়েরা এগিয়ে যাওয়ায় দেশ এগিয়ে গেছে। ৪ কোটি ছেলেমেয়ে স্কুল কলেজে লেখাপড়া করে। বিস্তারিত… (62 বার পড়া হয়েছে)

বাহুবলে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লন্ডন প্রবাসীসহ ২ জন নিহত

হবিগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা : হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার মুগকান্দি গ্রামে মসজিদের কমিটি ও ইমাম পরিবর্তন নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে লন্ডন প্রবাসীসহ দুইজন নিহত হয়েছে। এতে উভয় পক্ষের শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়েছে। সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ১০০ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ও ২৫ রাউন্ড কাদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে। এই ঘটনায় জড়িত থাকার দায়ে ৮জনকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার ফজরের নামাজের পর এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এর আগে গত শুক্রবার জুম্মার নামাজের পরও উভয় পক্ষের সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছিল। বিস্তারিত…

(113 বার পড়া হয়েছে)