24 Oct 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

বিশ্ব হার্ট দিবস উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন– বিশ্বে প্রতিবছর ১ কোটি ৭৩ লাখ মানুষ হৃদরোগে মৃত্যুবরণ করছে

DSC_0122স্টাফ রিপোর্টারঃ বাংলাদেশ হ্যালথ বুলেটিন ২০১৩ সালের এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী হৃদরোগে মৃত্যুর হার শতকরা ১২.২ ভাগ। বর্তমানে সারা বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় এক কোটি ৭৩ লাখ মানুষ এই রোগে মৃত্যুবরণ করছেন। ২০৩০ সালের মধ্যে এই সংখ্যা বেড়ে দুই কোটি ৩০ লাখে দাড়াবে বলে অভিজ্ঞ মহল আশঙ্কা করছেন। বাংলাদেশ কার্ডিয়াক সোসাইটি ও সিলেট হার্ট এসোসিয়েশনের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।
বিশ্ব হার্ট দিবস ২০১৭ উদযাপন উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেট প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। ‘হৃদয়ের শক্তি ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে’ এই প্রতিবাদ্যকে সামনে রেখে ২৯ সেপ্টেম্বর দিবসটি পালনের জন্য দু’দিনব্যাপী কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। প্রথম দিনের কর্মসূচির মধ্যে ছিল সিলেট প্রেসক্লাব সদস্যদের জন্য ফ্রি হার্ট ক্যাম্প, র‌্যালি ও সংবাদ সম্মেলন। আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় হৃদরোগ প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা ও মতবিনিময় সভা।
সংবাদ সম্মেলনে উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ডা. এসএম হাবিবউল্লাহ সেলিম লিখিত বক্তব্যে বলেন, হৃদরোগের মধ্যে করোনারী হার্ট ডিজিজ, ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ ও স্ট্রোক নবঘাতক হিসেবে দেখা দিয়েছে। দিন দিন এ রোগের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ রোগ প্রতিরোধের করণীয় জানতে হবে এবং সচেতন থাকতে হবে। তিনি বলেন, রক্তের উচ্চমাত্রা কোলেস্টেরলের কারণে প্রতিবছর পৃথিবীতে প্রায় ৪০ লাখ মানুষের মৃত্যু ঘটে। এছাড়া ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগিদের ক্ষেত্রে মৃত্যুর হার প্রায় ৬০ শতাংস। তাই ডায়াবেটিস শনাক্ত করে এ সম্পর্কে সচেতন হোন এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়মিত পরীক্ষা করে ভারসাম্যে নিয়ে আসুন। এসব রোগিদের জন্য নিয়মিত খাবার এবং পানীয় গ্রহণ, ফলমূল এবং শাকসবজি খাবার তালিকায় রাখা। এছাড়া হার্টকে গতিশীল রাখতে সপ্তাহে অন্তত ৫দিন আধাঘন্টা করে মাঝারি ধরনের ব্যায়াম ও শারীরিক পরিশ্রম করতে হবে। ধূমপায়ী হলে হার্টের সুস্থতার জন্য ধূমপান ছেড়ে দেয়া জরুরি।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, নিয়মিত পরীক্ষা এবং স্বাস্থ্য সচেতন থাকলে হার্টএ্যাটাক জনিত মৃত্যু প্রতিরোধ করা যেতে পারে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ২০২৫ সালের মধ্যে হৃদরোগে অকাল মৃত্যুর হার কমিয়ে আনা যাবে বলে তিনি প্রত্যাশা করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উদযাপন কমিটির আহবায়ক ও সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে ও হাসপাতালের কার্ডিওলজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডা. মুহম্মদ শাহাবুদ্দীনসহ চিকিসকবৃন্দ। (142 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)