20 Nov 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

সিলেট-৫ আসনে কে আসছেন লাঙ্গল প্রতিক নিয়ে?

এখলাছুর রহমান, জকিগঞ্জ থেকে: সিলেট-৫ আসন দুটি উপজেলা জকিগঞ্জ-কানাইঘাট নিয়ে গঠিত। এ আসনে একাদশ সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জাতীয় পার্টির সম্ভাব্য সংসদ সদস্য প্রার্থীদের তৎপরতা শুরু হয়েছে। একক নির্বাচন করতে জাতীয় পার্টি নেতাকর্মীদের মাঝে নির্বাচনী প্রস্তুতি চলছে। নির্বাচনী মাঠ গোছাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। এ আসনে নির্বাচনী টিকেট দৌঁড়ে আছেন বর্তমান সংসদ সদস্য বিরোধী দলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন এমপি, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ সাবেক চেয়ারম্যান ও কেন্দ্রীয় জাপার সাংগঠনিক সম্পাদক শাব্বির আহমদ, জেলা ছাত্রসমাজের সাবেক সভাপতি, বর্তমান কেন্দ্রীয় জাপার নির্বাহী সদস্য ব্রিটিশ এ্যায়ার্ডপ্রাপ্ত শ্রেষ্ট বাংলাদেশী শিল্পপতি জাকির হোসাইন। নির্বাচনী মাঠ ঘুরে দেখা গেছে, সকল প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা নিজের পছন্দের প্রার্থীর গুণাগুন জনগনের সামনে তুলে ধরছেন। জনগনের মন জয় করতে কেউ থেকে কেউ পিছিয়ে নেই।
সেলিম উদ্দিন এমপির সমর্থিত কর্মী সমর্থকদের দাবী, দশম সংসদ নির্বাচনে সেলিম উদ্দিন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে জকিগঞ্জ-কানাইঘাট জাতীয় পার্টির নিষ্ক্রিয় নেতাকর্মীকে উজ্জিবিত করেছেন। এ আসনে বিগত সময়ের চাইতে বেশী তিনি উন্নয়ন করেছেন। জনগন তাঁকে উন্নয়নের কারণে ভালোবাসে। তিনি আবারো এ আসনে প্রার্থী হলে জনগন তাঁকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবে।
শাব্বির আহমদের সমর্থক নেতাকর্মীদের দাবী, শাব্বির আগামী নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী থাকবেন। তিনি বিগত সময়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকায় এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পাদন করেছেন। এ কারণে জকিগঞ্জ-কানাইঘাটে তাঁর বিপুল ভোট ব্যাংক ও জনসমর্থন রয়েছে। তিনি জাতীয় পার্টির দূঃসময়ে পার্টির হাল ধরেছেন বলে জানান তার কর্মী সমর্থকরা।কেন্দ্রীয় জাপার নির্বাহী সদস্য জাকির হোসাইনের সমর্থিত নেতাকর্মীদের দাবী, জাকির হোসাইন ছাত্র সমাজের মাধ্যমে রাজনীত শুরু করে জেলা ছাত্রসমাজের সভাপতি ছিলেন। পর্যায়ক্রমে কেন্দ্রীয় জাপায় তাঁকে স্থান দিয়েছেন এরশাদ। জাকিরকে প্রার্থী দিলে জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের মানুষ নির্বাচিত করবে।
একাদশ সংসদ নির্বাচন নিয়ে বর্তমান এমপি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সেলিম উদ্দিন বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকার গ্রামে’গঞ্জে, শিক্ষা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড হয়েছে। আমার কাজের মূল্যায়ন হিসেবে জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের সর্বস্থরের মানুষ এখন আমাকে আবারো এ আসনে প্রার্থী চাচ্ছে। আমি এ আসনে নির্বাচিত হয়ে দলকে সুসংগঠিত করেছি। দল আমাকে প্রার্থী দিলে আমি নির্বাচন করে আবারো নির্বাচিত হবো। জনগন আমার কর্মের মূল্যায়ন করবে। অতীতের চাইতে অনেক বেশী উন্নয়ন করেছি আমি, যা দৃশ্যমান রয়েছে। এ সংসদীয় আসনকে আমি একটি মডেল আসনে রূপান্তরিত করতে চাই।
মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় জাপার সাংগঠনিক সম্পাদক জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাব্বির আহমদ বলেন, আমি বিগত দশম সংসদ নির্বাচনের আগে জাপার চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের নির্দেশে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে জাতীয় পার্টির টিকেট পেয়েছিলাম। আমি টিকেট পাওয়ার কারণে তৎকালীন সময়ের বিরোধী দলীয় নেতাকর্মীরা আমার বাসায় বোমা হামলা করেছে। কানাইঘাটের সড়কের বাজার এলাকায় পরপর দুবার আমার উপর হামলা চালিয়ে আমার দুটি গাড়ী ভাঙ্গচুর করেছে। আমি খুব বেশী ক্ষতিগ্রস্ত ও অনেক নির্যাতিত হয়েছি জাতীয় পার্টির কারণে। পরে আবার পার্টির চেয়ারম্যানের নির্দেশে আমি মনোনয়পত্র প্রত্যাহার করেছি। পার্টির চেয়ারম্যান আমাকে তাঁর ছেলের মত দেখেন। তিনি আমাকে ছেলে হিসেবেও স্বীকৃতি দিয়েছেন। একাদশ নির্বাচনে পার্টির চেয়ারম্যান আমাকে বলেছেন মাঠে কাজ করতে। তিনি আমাকে এ আসনে প্রার্থী দিবেন বলেও জানিয়েছেন। পার্টির চেয়ারম্যানের আশ্বাসের কারণে আমি নির্বাচনী মাঠ গোছাতে শুরু করেছি। নির্বাচন একক বা মহাজোট হয়ে হোক আমি এ আসনে প্রার্থী থাকবো এটা আমার বিশ্বাস। জনগনের সাথে আমার নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। আমি বিগত সময়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থাকার কারণে জনগনের অনেক উন্নয়ন করেছি। আমার বিশ্বাস পার্টি আমাকে দলীয় মনোনয়ন দিলে বিগত দিনের কারণে জনগন আমাকে নির্বাচিত করবে।
কেন্দ্রীয় জাপার নির্বাহী সদস্য সাবেক ছাত্রনেতা ব্রিটিশ বাংলাদেশী শ্রেষ্ট শিল্পপতি জাকির হোসাইন বলেন, আমি জাতীয় পার্টির দুঃসময়ে ও এরশাদ মুক্তি আন্দোলনে অনেক নির্যাতন, জেল জুলুমের শিকার হয়েছি। পার্টির জন্য অনেক ত্যাগ করেছি। এখন নেতাকর্মীরা আমাকে প্রার্থী হওয়ার জন্য দাবী জানাচ্ছে। পার্টি যদি আমাকে আমার অতীতের রাজনৈতিক কর্মকান্ড বিবেচনা করে টিকেট দেয় তাহলে আমি নির্বাচন করবো। পার্টির সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কিছু করতে চাইনা।
কেন্দ্রীয় জাপার সদস্য সাইফুদ্দিন খালেদ বলেন, এ আসনে জাতীয় পার্টি নির্বাচিত হতে হলে জকিগঞ্জ-কানাইঘাটের বাসিন্দা এমন কাউকে প্রার্থী দিতে হবে। আমি নির্বাচনী মাঠে কাজ করছি। দল আমাকে টিকেট দিলে আমি প্রার্থী হবো। আমি দলের সিদ্ধান্তের বাইরে কিছু বলা সম্ভব নয়।

(216 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)