21 Sep 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

বড়লেখায় দুর্গতদের জন্য বরাদ্দ ৩০২ মেট্টিক টন চাল, ৩৪ লাখ ১৮ হাজার টাকা ত্রাণ বিতরণে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ

আবদুর রব, বড়লেখা থেকে : হাকালুকি হাওরপাড়ের বড়লেখা উপজেলার ৯ ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ ঝড়-তুফান, শিলাবৃষ্টি, ভারী বর্ষণ, বন্যায় বিপর্যস্ত। গত চৈত্রমাস থেকেই হাকালুকি হাওরপারের তালিমপুর, বর্নি ও সুজানগর ইউনিয়নের প্রায় ৩০ হাজার কৃষক বোরো ফসল হারিয়ে দিশেহারা হয়ে উঠে। এরপর অব্যাহত ভারি বর্ষণে উজানের ইউনিয়নগুলোও বন্যা কবলিত হয়ে পড়ে। ৯ ইউনিয়নে দেখা দেয় স্থায়ী বন্যা। শতাধিক গ্রামের বাড়িঘর, রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করতে থাকে। গত ৮ এপ্রিল সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি সরেজমিনে হাকালুকি হাওরপারের মানুষের দুর্ভোগ দেখে দুর্গত পরিবার প্রতি নগদ ৫০০ টাকা ও ৩০ কেজি চাল বিতরণের ৩ মাসের কর্মসুচির ঘোষণা দেন। এ কর্মসুচির শেষ কিস্তির চাল বিতরণ বৃহস্পবিার অনুষ্ঠিত হয়।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সুত্র জানায় মন্ত্রীর ঘোষনার প্রেক্ষিতে ১৮৫০ জন ক্ষতিগ্রস্তের মধ্যে ভিজিএফ কর্মসুচির আওতায় ২৫২.৫৮ মেট্টিক টন চাল ও ২৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা, জিআর কর্মসুচির আওতায় দুর্গতদের মধ্যে ১৫০ মেট্টিক টন চাল ও নগদ ৬ লাখ ৯৩ হাজার টাকা বিতরণ করা হয়েছে। সর্বশেষ গত ৪ জুলাই দুর্গত ৯ ইউনিয়নের জন্য ৪৫ মেট্টিক টন জিআর চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে।
ত্রাণের চাল ও টাকা বিতরণে স্বজনপ্রীতির অভিযোগ: চেয়ারম্যান মেম্বারদের বিরুদ্ধে দুর্গত লোকজনের অভিযোগের অন্ত নেই। সুজানগর ইউনিয়নের ভোলারকান্দি গ্রামের মফিজ আলীর স্ত্রী পারভিন বেগম জানান, ঘর-দোয়ার পানিতে ডুবে গেছে। অনেকবার মাসুক মেম্বারের কাছে সাহায্যের জন্য গিয়েছেন। কিন্ত কোন রিলিফ দেন নাই। শুধু টিএনও সাহেব একদিন চিড়া-মুড়ি দিয়েছেন। একই গ্রামের মুতলিব মিয়াও ত্রান না পওয়ার অভিযোগ করেন। তালিমপুর ইউনিয়নের হাল্লা গ্রামের দুর্গত জয়নাল মিয়া, মইজ উদ্দিন, আসমানা বেগম অভিযোগ করেন তাদের ওয়ার্ডের সাহিন মেম্বার আত্মীয়-স্বজন আর যারা তাকে ভোট দিয়েছে তাদেরকেই সরকারী সুযোগ সুবিধা দিচ্ছেন। অনেক ক্ষতিগ্রস্ত গরীব মানুষ ত্রাণ পাচ্ছে না।
কোন মানুষ অভুক্ত থাকবে না, শিগগীর চালু হচ্ছে ওএমএস :
দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব আমিন হোসেন জানান, হাকালুকি হাওরপারের কোন দুর্গত মানুষ অভুক্ত থাকবে না। মঙ্গলবার ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন মায়া এমপি হাকালুকির বন্যা পরিস্থিতি দেখে গেছেন। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে তিনি গত ৩ দিন ধরে বন্যা দুর্গত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করছেন। চাহিদা অনুযায়ী তড়িৎ গতিতে মন্ত্রনালয় ত্রাণের বরাদ্দ দিচ্ছে। দুর্গত এলাকায় ১ জুলাই থেকে বন্ধ থাকা ওএমএসের চাল বিক্রি শুরু হবে। অতিরিক্ত সচিব আমিন হোসেন বৃহস্পতিবার জুড়ী ও বড়লেখা উপজেলার বিভিন্ন বন্যাদুর্গত এলাকায় ভিজিএফের ত্রাণের চাল ও নগদ অর্থ বিতরণকালে এসব কথা বলেন।

(72 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)