28 Jul 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

বন্যাদুর্গতদের পুর্নবাসনে সরকার দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে : অর্থমন্ত্রী

 ফেঞ্চুগঞ্জ ও ওসমানীনগর প্রতিনিধি ঃ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত বলেছেন বর্তমান সরকার বন্যাদুর্গতদের পাশে রয়েছে। সরকারের কাছে পর্যাপ্ত পরিমান খাদ্য সামগ্রী মজুদ রয়েছে। কিছুদিন আগে চালের দাম বেড়ে গিয়েছিল এখন তা সহনীয় পর্যায় চলে এসেছে। বন্যাদুর্গতদের পুর্নবাসনের জন্য সরকার দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। এজন্য চিন্তার কোনো কারণ নেই।

অর্থমন্ত্রী বিকেলে সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার উত্তর ইসলামপুর গ্রামের বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণবিতরণকালে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি এবারের বন্যা পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট আর্কষীক বলে অভিহিত করেন। সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ারের সভাপতিত্বে ও ফেঞ্চুগঞ্জের ইউএনও হুরে জান্নাতের পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন সিলেট ৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক সিটি মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জাতিসংঘের বাংলাদেশ মিশনের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি এ কে এম মোমেন, সিলেটের জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী, সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া চৌধুরী কেয়া। পরে অর্থমন্ত্রী বনার্তদের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন।
ওসমানীনগরে অর্থমন্ত্রীর ত্রাণ বিতরন
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি বলেছেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের উন্নয়নে সরকার আন্তরিক রয়েছে। বন্যার্ত মানুষের কথা মাথায় রেখে ভিজিএফ কার্ড এর মেয়াদ বাড়ানো হবে। সরকার সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করছে। সরকারের উন্নয়নমূলক কাজে তাই সকলকে সহযোগীতা করতে হবে। তিনি গতকাল শুক্রবার বিকালে উপজেলার দয়ামীর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে সিলেট জেলা পরিষদের উদ্দোগে আয়োজিত ত্রান বিতরন পূর্ব এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. লুৎফুর রহমান এর সভাপতিত্বে ও সাবেক সংসদ সদস্য জেলা আ‘লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী‘র পরিচালনায় অনুষ্টিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জাতিসংঘের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ডঃ এ কে মোনেন, সিলেট মহানগর আ‘লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার,পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান, আ‘লীগ নেতা সৈয়দ এপতেয়ার হোসেন পিয়ার, ওসমানীনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ময়নুল হক চৌধুরী, বালাগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবদাল মিয়া, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু জাহিদ, উপজেলা আ‘লীগের সভাপতি আতাউর রহমান,সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী লাজলু, দয়ামীর ইউপি চেয়ারম্যান এসটিএম ফখর উদ্দিন,উমরপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া,আ‘লীগ নেতা হাজী হিরন মিয়া, ফারুক আহমদ, এ্যাড আফসর আহমদ,জুবায়ের আহমদ শাহিন, ঝলক পাল ,যুবলীগ নেতা জাবেদ আহমদ আম্বিয়া, দিলদার আলী স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ছঞ্চল পাল, ছাত্রলীগ নেতা সামসুল ইসলাম মিলন প্রমুখ।

(26 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)