28 Jul 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

নবীগঞ্জে ভালবেসে বিয়ে করে যৌতুক মামলায় পুলিশের খাঁচায় বন্দি

নবীগঞ্জ সংবাদদাতা : হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায় ভালবেসে বিয়ে করে পরে স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুক মামলায় পুলিশের খাচায় বন্দি হলেন যুবক রুহেল। ঘটনাটি ঘটেছে নবীগঞ্জ উপজেলার বৈঠাখাল গ্রামে। এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, প্রায় দীর্ঘ দিন প্রেমের সম্পর্কের পর অবশেষে ওই গ্রামের মোঃ আমির মিয়ার কন্যা মোছাঃ সুমাইয়া আক্তার ও মোঃ সুফিয়ান মিয়ার পুত্র মনিরুল ইসলাম (রুহেল ) গত ১ নভেম্বরে হবিগঞ্জ বিজ্ঞ নোটারি পাবলিক এর মাধ্যমে বিয়ে করেন।এতে বাদ সাধে তাদের উভয় পরিবারের। তারা কোন মতেই মেনে নিতে পারেননি তাদের ওই বিয়ে।এর পর থেকে তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে যৌতুকের টাকা চাওয়া নিয়ে বিরোধের সুত্রপাত হয়। এরই মধ্যে তারা দু’জন পৃথক ভাবে চলাফেরা শুরু করেন। স্ত্রী সুমাইয়া কোন মতেই মেনে নিতে পারেননি রুহেলের এই আচরণ। পরে সুমাইয়া আক্তার হবিগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে যৌতুকের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে এফআইআর পুর্বক তদন্ত করে প্িরতবেদন দিতে নবীগঞ্জ থানার ওসিকে নির্দেশ দেন। এরই প্রেক্ষিতে গত বুধবার দিবাগত রাত ১১ টায় মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই মোঃ কবির উদ্দিন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রুহেলকে তার গ্রামের বাড়ি বৈঠাখাল থেকে গ্রেফতার করেন। এব্যাপারে রুহেলের আত্মীয় স্বজনেরা জানান, সে প্রতিহিংসার শিকার। মামলার বাদি সুমাইয়া আক্তারের পরিবারের লোকজন জানান, যদিও ভালবেসে বিয়ে করেছে রুহেল। তারা এই বিয়ে কোন মতে মেনে নিয়েছিলেন। কিন্তু রুহেল যৌতুকের টাকার জন্য অহরহ চাপ দিয়েছে সুমাইয়াকে ।

(54 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)