28 Jul 2017 : সিলেট, বাংলাদেশ :     |Bangla Font Error | Login |

ডাকাতি, না অশনি সংকেত?

গতকাল দৈনিক জালালাবাদে ‘খাদিমনগরে আওয়ামী লীগ নেতার বাড়ীতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি, ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট’ শীর্ষক এক সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, শহরতলীর এয়ারপোর্ট থানার খাদিমনগর ইউনিয়নের ছালেপুর গ্রামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ডাকাত দল ৪ ভরি স্বর্ণ ও নগদ টাকাসহ প্রায় ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এতে আরো বলা হয়েছে, ডাকাতরা পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে আলমারি ভেঙ্গে এসব স্বর্ণ, অর্থ ও মালামাল নিয়ে যায়।
প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেট অঞ্চলে এ ধরণের দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা নতুন কিছু নয়। এখানে হাফপ্যান্ট বাহিনীর দুর্ধর্ষ ডাকাতি নিয়ে অনেক সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। তবে উপরোক্ত ডাকাতির ঘটনা একটি অশনি সংকেত হিসেবে অনেকের কাছে প্রতীয়মান হচ্ছে। তাদের ধারণা, এ ধরণের ঘটনা এখন উপর্যুপরি ঘটার আশংকা রয়েছে। সাম্প্রতিক প্রাকৃতিক দুর্যোগে হাওরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে লাখ লাখ মানুষ সীমাহীন অনটন ও দুঃখ কষ্টের মধ্যে নিপতিত হয়েছেন। অনেকে হয়ে পড়েছে বেকার। এ অবস্থায় মানুষের মাঝে অপরাধ প্রবণতা বৃদ্ধির আশংকা অমূলক নয়।
দেখা গেছে, অনেকে অভ্যাসবশতঃ অপরাধকর্ম সংঘটন করলেও বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে অভাবই মানুষকে অপরাধ ও অপকর্মের দিকে ঠেলে দেয়। এছাড়া গত ক’মাস যাবৎ এদেশে প্রধান খাদ্যপণ্য চালের দাম দ্বিগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে সিংহভাগ মানুষের জীবনে নেমে এসেছে বাড়তি দুর্ভোগ ও দুর্গতি। সাম্প্রতিক প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিশেষভাবে বোরো ফসলহানির ঘটনা এই দুর্ভোগকে কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে। তাই এ অবস্থায় দেশে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি ইত্যাদি অপরাধ বৃদ্ধি পাবার আশংকা করছেন সচেতন মহল।
আমরা মনে করি আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সমূহের এখনই কার্যকর ও পরিকল্পিত প্রতিরোধমূলক উদ্যোগ গ্রহণ করা জরুরী। দুঃখের বিষয়, সাম্প্রতিককালে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার একশ্রেণীর কর্মকর্তা ও সদস্যকে স্বীয় দায়িত্ব পালনের পরিবর্তে বিরোধী দলীয় নেতা কর্মীদের পিছু ধাওয়া এবং গ্রেফতার বাণিজ্যে অধিক মনোযোগী হতে দেখা যাচ্ছে। এ অবস্থায় সিলেটসহ দেশের অন্যান্য স্থানে চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাই বাড়ছে। ইদানিং নগরীর অনেক স্থানে রাতের বেলা পুলিশ প্রহরা কিংবা টহল পুলিশের কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না।
সিলেট নগরীর বাসিন্দাসহ জনগণ এ ব্যাপারে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর কার্যকর সময়োচিত পদক্ষেপ কামনা করেন। আমরা এ বিষয়ে সরকারের উর্ধতন মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। (151 বার পড়া হয়েছে)

(Visited 1 times, 1 visits today)